মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪

নজর“লের চেতনার অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ চাই মোঃ আশিকুর রহমান

পাঠক প্রিয়

টাঙ্গাইলে আন্ত:স্কুল কারাতে প্রতিযোগিতা

টাঙ্গাইল জেলার পুলিশ লাইন্স মাল্টিপারপাস শেড এ অনুষ্ঠিত হলো আন্ত:স্কুল কারাতে প্রতিযোগিতা। ক্রীড়া পরিদপ্তরের বার্ষিক ক্রীড়া কর্মসূচির আওতায় এই...

অগ্রণী ব্যাংকের সঙ্গে খাদ্য অধিদপ্তরের চুক্তি স্বাক্ষরিত

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন খাদ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার নির্মাণ প্রকল্পের প্যাকেজ জিডি-২৭ এর আওতায় ফুড স্টক মার্কেট মনিটরিং...

২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বর। প্রকাশিত হয় জাতীয় কবি কাজী নজর“ল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ফলাফল। ২১তম হয়ে পেয়ে যাই বিদ্রোহী কবির নামে প্রতিষ্ঠিতর দেশের একমাত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ। ভাইভার পর ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ের সুযোগ পেলেও ভর্তি হওয়া হয়নি। ভর্তি হয়েছিলাম সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের লোকপ্রশাসন ও সরকার পরিচালনা বিদ্যা বিভাগে। এই অনুষদে অবশ্য ১৬ তম হয়েছিলাম। সে যাইহোক, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পরই ঊনবিংশ শতকের ইতিহাস প্রান্তিক শেষ নিঃসংশয়বাদী কবি স¤পর্কে, তার সৃষ্টি, তার দর্শন, তার দৃষ্টিভঙ্গি স¤পর্কে জানার আগ্রহ খুব বেশী বেড়ে গিয়েছিলো। কেননা পুরো বিশ্ববিদ্যালয়েই কবির ছোঁয়ায়, স্মৃতিতে জীবন্ত। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিবহনের জন্য ধূমকেতু, প্রভাতি, প্রলয় শিখা, বাঁধনহারা নামের বাস কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করেই খানিক এগোলেই ‘চির উন্নত মম শির’ নামক স্মৃতিস্তম্ভ কিংবা ‘গাহি সাম্যের মঞ্চ’, ‘চুর“লিয়া মঞ্চ’ এর দেখা মিলবে৷ কাব্যগ্রš’ ্#৩৯;অগ্নিবীণ্#া৩৯; ও ্#৩৯;দোলনচাঁপ্#া৩৯;র নামে শিক্ষার্থীদের হল, কাব্যগ্রš’ ‘চক্রবাক’ এর নামে ক্যাফেটেরিয়া, ছোটগল্প ‘ব্যথার দান’র নামে মেডিকেল সেন্টার কিংবা কবির ডাকনাম দুখু মিয়ার নামে নামকরণকৃত উপাচার্যের বাসভবনের নামকরণে এই বিদ্রোহী নটরাজের আবেদন বাড়িয়েছে।

কাজী নজর“ল ইসলাম ছিলেন বিদ্রোহী দৃষ্টিভঙ্গি আর অন্যায়ের বির“দ্ধে সো”চার কণ্ঠস্বর।  কারণেই তিনি ভ‚ষিত হন বিদ্রোহী কবি হিসেবে। আজীবন সংগ্রাম করেছেন শোষিত মানুষের মুক্তির জন্যে। সো”চার ছিলেন সা¤প্রদায়িকতা, ধর্মান্ধতা, কুসংস্কার, ক‚পমণ্ড‚কতার বির“দ্ধে। তর“ণদের কাছে তিনি বিদ্রোহের অনন্ত প্রতীক। আমিও এর ব্যতিক্রম নই, চির উন্নত মম শির কাজী নজর“ল ইসলামকে মননে লালন, ধারণের সর্বাÍক চেষ্টা করে যাই। কবি তার মাত্র দুই যুগের সৃষ্টিকর্ম জুড়ে পরাধীন দেশের মানুষকে মুক্তির পথ দেখিয়ে গেছেন। তিনি পুতুলের বিয়ে (১৯৩৩) নাটিকায় লিখেছিলেন, মোরা একই বৃন্তে দুটি কুসুম হিন্দু-মুসলমান। মুসলিম তার নয়ন-মণি, হিন্দু তাহার প্রাণ। নজর“ল হিন্দুমুসলিম ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে মানবধর্মকে লালন করার কথা বলেছেন। তিনি ধর্মীয় ভেদাভেদ ভুলে মানবতাকে সবচেয়ে বড় করে দেখার জন্য সাম্যবাদী (১৯২৫) কবিতায় বলেছেন, মানুষের চেয়ে বড় কিছু নাই, নহে কিছু মহীয়ান।/ নাই দেশ-কাল-পাত্রের ভেদ, অভেদ ধর্ম জাতি,/ সবদেশে, সব কালে, ঘরে ঘরে তিনি মানুষের জাতি। নজর“ল তাঁর সাহিত্যে পার¯পারিক সাংস্কৃতিক সমন্বয়কে তুলে ধরেছেন। তাঁর মতে, এর ফলে দুই প্রধান স¤প্রদায়কে এক কাতারে আনা এবং সমাজে অধিকতর সহনশীলতা নিশ্চিত করা যাবে। তাই তিনি হিন্দু ও মুসলমান ধর্মীয় বিভিন্ন চরিত্রকে সংমিশ্রণ করে ব্যবহারকরেছেন। নজর“ল তাঁর সাহিত্যকর্মে নারী-পুর“ষকে সমানভাবে দেখেছেন। তিনি নারীকে যথাযথ স্বীকৃতি দিতে কুণ্ঠিত হননি। তাঁর মতে, পৃথিবীতে সকল ‘কল্যানকর অবদানের অধিকারী হ”েছ এই নারী। তিনি নারী (১৯২৫) নামের কবিতায় বলেন, ‘আমার চক্ষে পুর“ষ-রমনীর কোনো ভেদাভেদ নাই।/বিশ্বের যা-কিছু মহান সৃষ্টি চির-কল্যাণকর/ অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর। এর মাধ্যমে তিনি নারীর ক্ষমতায়নের ইঙ্গিত দিয়েছেন। নজর“ল অন্যান্য লেখনীতেও নারীর প্রতি গভীর সম্মান প্রদর্শন করেছেন। নজর“ল সবসময় চেয়েছেন, মানুষে মানুষে বিভেদ সৃষ্টিকারী ধর্মীয় সাংস্কৃতির রাজনৈতিক ভৌগোলিক অচলায়তন ভেঙে ফেলতে। অন্তরের গভীর উপলব্ধি থেকে উ”চারণ করেছেন, ‘মানুষের চেয়ে বড় কিছু নাই নহে কিছু মহীয়ান। তিনি মানুষের ভেতরে আত্মবিশ্বাস এবং আত্মপ্রত্যয়ের অনমনীয় চিত্তকে জাগিয়ে তুলতে চেয়েছেন। মহান কবির নামে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থী হিসেবে আমি চাই জাতীয় কবি কাজী নজর“ল ইসলাম এর চেতনায় সা¤প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষ উৎপাটন করে অসা¤প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে উঠুক। জেগে উঠুক মানুষের ভেতরে আত্মবিশ্বাস এবং আত্মপ্রত্যয়ের অনমনীয় চিত্ত। তিনি আজীবন অসা¤প্রদায়িক, বৈষম্যহীন, শোষণমুক্ত ও শান্তিপূর্ণ সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলেন, দেখিয়েছিলেন। তার জীবনাদর্শ অনুসরণ করে একটি অসা¤প্রদায়িক, বৈষম্যহীন, শান্তিপূর্ণ, সুখী-সমৃদ্ধ ও আধুনিক বাংলাদেশ বিনির্মাণ হোক- এটাই আমার প্রত্যাশা।

সর্বশেষ সংবাদ

অগ্রণী ব্যাংকের সঙ্গে খাদ্য অধিদপ্তরের চুক্তি স্বাক্ষরিত

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন খাদ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার নির্মাণ প্রকল্পের প্যাকেজ জিডি-২৭ এর আওতায় ফুড স্টক মার্কেট মনিটরিং...

টাঙ্গাইলে আন্ত:স্কুল কারাতে প্রতিযোগিতা

টাঙ্গাইল জেলার পুলিশ লাইন্স মাল্টিপারপাস শেড এ অনুষ্ঠিত হলো আন্ত:স্কুল কারাতে প্রতিযোগিতা। ক্রীড়া পরিদপ্তরের বার্ষিক ক্রীড়া কর্মসূচির আওতায় এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে টাঙ্গাইল জেলা...

যক্ষা থেকে পরিত্রান পেতে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে, কাউন্সিলর আলমগীর

শনিবার (১৮ মে’২০২৪) ৩১ নংওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় খুলনা মুক্তি সেবা সংস্থা ঢাকা অফিসের উদ্যোগে যক্ষা রোগ প্রতিরোধে ওয়ার্ড ভিত্তিক প্রচারণামূলক মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন...

সিএসই শরিয়াহ্ ইনডেক্স এ অর্ন্তভুক্ত কোম্পানীগুলোর সমন্বয়

সিএসই-র তালিকাভুক্ত কোম্পানীগুলোর পারফরমেন্স পর্যালোচনার ভিত্তিতে সিএসই শরিয়াহ্ ইনডেক্স চুড়ান্ত করা হয়েছে। নতুন ০৬টি কোম্পানীকে যুক্ত করা হয়েছে এবং পূর্বের ৫টি কেম্পানীকে বাদ দেওয়া...

পাবলিক প্রকিউরমেন্টে সমান সুযোগের জন্য অন্যায্য ধারা বাতিলের আহ্বান

রোববার সেমিনারে বক্তারা বলেন, সরকারকে পাবলিক প্রকিউরমেন্ট প্রক্রিয়ায় দেশি-বিদেশি সব প্রতিষ্ঠানের জন্য সমান খেলার ক্ষেত্র নিশ্চিত করতে স্থানীয় কোম্পানিগুলোর জন্য বৈষম্যমূলক কর কাঠামো অপসারণ...

জনপ্রিয় সংবাদ

সিভি এবং চাকুরী আবেদনের কিছু প্রয়োজনীয় টিপস

মানবসম্পদ বিভাগে কাজ করার বদৌলতে প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন অভিজ্ঞতার সম্মুখে পরতে হয়। যার অধিকাংশই আসে সিভিকে কেন্দ্র করে। আমি সিরিজ আকারে সিভি এবং ক্যারিয়ার...

মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে তুরাগ থানা ছাত্রলীগ

তুরাগ থানা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ আরিফ হাসান জানায়, গত ১১-০৮-২০২০ তারিখে ’আমার প্রাণের বাংলাদেশ’ নামক পত্রিকার অনলাইন সংস্করণে ‘রাজধানীর উত্তরা যুবলীগ নেতা নাজমুল হাসান...

 ফিনান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েট পদে নিয়োগ জোরদার করলো মেটলাইফ বাংলাদেশ

ফিনান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েট হিসেবে যোগদানে আগ্রহী প্রার্থীদের জন্য ডিজিটাল নিয়োগ প্ল্যাটফর্ম উন্মোচন করেছে মেটলাইফ বাংলাদেশে। অনন্য এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম আগ্রহী প্রার্থীদেরকে বাসা থেকেই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে...

২৩ কোটি বছরের পুরনো হিরকখণ্ড উদ্ধার!

দেখতে কি সুন্দর হিরকখণ্ডটি । শুক্রবার রাশিয়ার অ্যানাবার নদীর ধারে আলরোসার এবেলিয়াখ খনি থেকে উদ্ধার হয় এই হিরক খণ্ডটি। এখনও স্থির হয়নি হিরকখণ্ডটি পালিশ...