বুধবার, জুন ১২, ২০২৪

ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক বাহরাইনে সরকার পতনের কারণ হতে পারে

পাঠক প্রিয়

দখলদার ইহুদিবাদী ইসরাইলের সাথে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সমঝোতা হওয়ার প্রায় এক মাস পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইসরাইলের সাথে বাহরাইনের সমঝোতার ঘোষণা দিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত ১৩ আগস্ট ইসরাইলের সঙ্গে আমিরাতের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার খবর দিয়েছিলেন। ওই সমঝোতার পর ধারণা করা হচ্ছিল খুব অল্পসময়ের মধ্যে ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইনেরও সমঝোতা হয়ে যাবে।

তেলআবিব-আম্মানের মধ্যকার সমঝোতা কয়েকটি দিক থেকে তাৎপর্যপূর্ণ। প্রথমত, আরব লীগের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের মাত্র দু’দিন পর ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইনের সমঝোতার খবর প্রকাশিত হলো। গত ১৯ সেপ্টেম্বর আরব লীগের ওই বৈঠকে ইসরাইলের সঙ্গে আমিরাতের সমঝোতার কোনো নিন্দা জানানো হয়নি বরং এর প্রতি তারা পরোক্ষ সমর্থন জানিয়েছে।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, আমিরাতের পর এখন ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইনের এই সমঝোতা নিঃসন্দেহে আরব দেশগুলোর জাতীয় পরিচিতিকে দুর্বল করে দেবে।

আমিরাতের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদ দাবি করেছিলেন, ইসরাইলের সঙ্গে তার দেশের সমঝোতার বিনিময়ে ইসরাইল জর্দান নদীর পশ্চিম তীরকে নিজ ভূখণ্ডের সঙ্গে একীভূত করার পরিকল্পনা থেকে সরে আসবে। যদিও ওই সমঝোতায় এ ধরনের পরিকল্পনার কোন কথাই সেখানে উল্লেখ নেই। এ থেকে বোঝা যায়, আমিরাতের যুবরাজের ওই দাবি সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং আমিরাতের মত বাহরাইনের সঙ্গেও শান্তি স্থাপনের বিনিময়ে ইসরাইল কোন ছাড় দেবে না।

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, দীর্ঘ ২৬ বছর অপেক্ষার পর তৃতীয় দেশ হিসেবে আমিরাতের সঙ্গে তাদের সমঝোতা হয়েছে, এরপর চতুর্থ আরব দেশ হিসেবে বাহরাইনের সঙ্গেও তাদের সম্পর্ক স্থাপন হবে।

ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের তৃতীয় গুরুত্বপূর্ণ দিক হচ্ছে, ইসরাইল-আমিরাত সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ঘোষণার মতো এবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বাহরাইনের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক স্থাপনেরও ঘোষণা দিলেন। এ থেকে বোঝা যায়, আরব এ দেশগুলোর স্বাধীনতা বলতে কিছু নেই এবং পররাষ্ট্র ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত গ্রহণের কোনো স্বাধীনতা বা ক্ষমতা এদের নেই। বাহরাইনে রয়েছে আমেরিকার পঞ্চম নৌবহরের ঘাঁটি এবং এই দেশটির জন্য হুমকি সৃষ্টি হয় এমন যেকোনো পরিস্থিতি থেকে বাহরাইনের আলে খলিফা সরকারকে রক্ষার দায়িত্ব নিয়েছে ওয়াশিংটন।

ফিলিস্তিনের ইসলামী জেহাদ আন্দোলনের কর্মকর্তা দাউদ শাহাব এ ব্যাপারে বলেছেন, বাহরাইনের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ থেকে বোঝা যায় বাহরাইন আমেরিকার আজ্ঞাবহ একটি দেশ। রাজতন্ত্র শাসিত আরব দেশগুলো এতটাই নিচে নেমে এসেছে যে মিশরের জাতীয় দলের সাবেক একজন খ্যাতনামা খেলোয়াড় মোহাম্মদ আবু তাকিয়ে ইসরাইল বাহরাইন সম্পর্ক স্থাপনের এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার উদ্যোগ বিশ্বাসঘাতকতার শামিল এবং ফিলিস্তিনিরা হচ্ছে বীরের জাতি তারা কখনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবে না।

চতুর্থ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হচ্ছে, ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইনের সমঝোতা থেকে প্রমাণিত হয় এ ধরনের সম্পর্কের মাধ্যমে আরব দেশগুলোর রাজা-বাদশারা তাদের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে পারবে কিনা সে নিশ্চয়তা না থাকলেও এটা আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের বিজয়ের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে পারে। অর্থাৎ এককভাবে লাভবান হবে ট্রাম্প ও দখলদার ইসরাইল।

আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আর মাত্র চার মাস বাকি রয়েছে। গত চার বছরের শাসনকালে পররাষ্ট্র ক্ষেত্রে ট্রাম্প প্রশাসনের কোন অর্জন নেই। এ অবস্থায় আমিরাত ও বাহরাইনের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে ট্রাম্প এটাকে পররাষ্ট্র ক্ষেত্রে তার বিরাট বিজয় হিসেবে দেখানোর চেষ্টা করবেন।

পঞ্চম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হচ্ছে, আমিরাতের মত বাহরাইনের অর্থনীতি অতটা শক্তিশালী নয়। এছাড়া বাহরাইনে রয়েছে সরকারবিরোধী শক্তিশালী দল এবং ২০১১ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে বাহরাইনে আলে খলিফা সরকারের বিরুদ্ধে জনগণের আন্দোলন চলে আসছে। অন্যদিকে, আমেরিকা ও সৌদি আরব আলে খলিফা সরকারের সমর্থনে কাজ করছে। সে কারণে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য বাহরাইনের সরকার ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করাসহ আমেরিকার যেকোনো দাবি মেনে নিতে তারা বাধ্য।

যাইহোক, পর্যবেক্ষকরা বলছেন বাহরাইনের আলে খলিফা সরকার ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে কৌশলগত অনেক বড় ভুল করল। এটা এমন এক ভুল যা সরকার পতনের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। পার্সটুডে

সর্বশেষ সংবাদ

যমুনা ব্যাংক অন্যতম সেরা জলবায়ু ফোকাস ব্যাংক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং গ্রীনটেক ফাউন্ডেশন আয়োজিত ২৪তম জাতীয় নবায়নযোগ্য শক্তি সম্মেলন এবং গ্রীন এক্সপো ২০২৪-এ যমুনা ব্যাংক বাংলাদেশের অন্যতম...

প্রধানমন্ত্রীর প্যারিস সফরের সম্ভাবনা

ঢাকায় ফরাসি রাষ্ট্রদূত মারি মাসদুপুই আজ বলেছেন যে, বাংলাদেশ বিমানের কাছে উড়োজাহাজ বিক্রির বিষয়ে এবং বাংলাদেশের জন্য নিজস্ব সার্বভৌম পৃথিবী-পর্যবেক্ষন স্যাটেলাইট প্রদানের জন্য এয়ারবাস...

স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সাম্প্রতিক প্রচেষ্টা

১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে পদার্পণের পরপরই যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ গঠনে আত্মনিয়োগ করেন। আকাশপথে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য...

পুঁজিবাজারে নারীর সম্ভাবনা অপার: স্পিকার

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, পুঁজিবাজারে জেন্ডার গ্যাপ দূর করতে হবে। তিনি বলেন, “পুঁজিবাজার একটা বিশেষায়িত ক্ষেত্র। পুঁজিবাজারে নারীর অংশগ্রহণের...

তিতাস গ্যাস গ্রাহকদের সুদিন ফিরছে

সরকারের সদিচ্ছা এবং তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হারুনুর রশিদ মোল্লাহ নানামুখী সংস্কার মূলক কাজ হাতে নেওয়ায় তিতাস গ্যাসের গ্রাহকদের...

জনপ্রিয় সংবাদ

সিভি এবং চাকুরী আবেদনের কিছু প্রয়োজনীয় টিপস

মানবসম্পদ বিভাগে কাজ করার বদৌলতে প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন অভিজ্ঞতার সম্মুখে পরতে হয়। যার অধিকাংশই আসে সিভিকে কেন্দ্র করে। আমি সিরিজ আকারে সিভি এবং ক্যারিয়ার...

মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে তুরাগ থানা ছাত্রলীগ

তুরাগ থানা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ আরিফ হাসান জানায়, গত ১১-০৮-২০২০ তারিখে ’আমার প্রাণের বাংলাদেশ’ নামক পত্রিকার অনলাইন সংস্করণে ‘রাজধানীর উত্তরা যুবলীগ নেতা নাজমুল হাসান...

 ফিনান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েট পদে নিয়োগ জোরদার করলো মেটলাইফ বাংলাদেশ

ফিনান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েট হিসেবে যোগদানে আগ্রহী প্রার্থীদের জন্য ডিজিটাল নিয়োগ প্ল্যাটফর্ম উন্মোচন করেছে মেটলাইফ বাংলাদেশে। অনন্য এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম আগ্রহী প্রার্থীদেরকে বাসা থেকেই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে...

২৩ কোটি বছরের পুরনো হিরকখণ্ড উদ্ধার!

দেখতে কি সুন্দর হিরকখণ্ডটি । শুক্রবার রাশিয়ার অ্যানাবার নদীর ধারে আলরোসার এবেলিয়াখ খনি থেকে উদ্ধার হয় এই হিরক খণ্ডটি। এখনও স্থির হয়নি হিরকখণ্ডটি পালিশ...